×
ব্রেকিং নিউজ :
  • আপডেট টাইম : 22/05/2023 09:21 PM
  • 9 বার পঠিত

পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আব্দুল মোমেন আজ বলেছেন, বিশ্বের বৃহত্তম এলএনজি রপ্তানিকারক দেশ থেকে আরও জ্বালানি পাওয়ার পাশাপাশি সেখানে কর্মরত প্রবাসী বাংলাদেশিদের কল্যাণ নিশ্চিত করতে ঢাকা কাতারের সাথে সম্পর্ক আরও গভীর করতে চায়।
আগামীকাল ২৩ থেকে ২৪ মে পর্যন্ত অনুষ্ঠেয় কাতার ইকোনমিক ফোরাম-২০২৩-এ যোগ দিতে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার দোহা রওনা হওয়ার কয়েক ঘণ্টা আগে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি বলেন, “আমরা কাতারের কাছ থেকে আরও জ্বালানি চাই। এছাড়াও, আমরা আমাদের মধ্যকার এই সম্পর্ককে আরও গভীর করতে চাই।
তিনি বলেন, এ বছর তিন মাসের মধ্যে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার দুই দফায় দোহা সফর- আন্তর্জাতিক অর্থনৈতিক অঙ্গনে বাংলাদেশের দৃশ্যমান উপস্থিতির পাশাপাশি কাতারের সঙ্গে ঘনিষ্ঠ বন্ধুত্বপূর্ণ সম্পর্কের ইঙ্গিত বহন করে।
পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, প্রধানমন্ত্রীর আগের সফরে চলমান বৈশ্বিক অর্থনৈতিক সংকটের মধ্যে বাংলাদেশের জ্বালানি চাহিদা নিশ্চিত করতে ঢাকা কাতার থেকে আরও এলএনজি আমদানি করতে চেয়েছিল।
মোমেন বলেন, ঢাকা ও দোহার মধ্যে আরও এলএনজি গ্যাস আমদানির বিষয়ে আলোচনা চলছে এবং এই সফরেও বিষয়টি নিয়ে আলোচনা হবে।
তিনি আরো বলেন, ‘তারা (কাতার) ইতোমধ্যে (বাংলাদেশে এলএন রপ্তানি করার জন্য) ইতিবাচক মনোভাব দেখিয়েছে।’ অর্থনৈতিক ফোরামের সাইডলাইনে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা কাতারের আমির শেখ তামিম বিন হামাদ আল-সানির সঙ্গে বৈঠক করবেন।
প্রধানমন্ত্রীর এই সফরকালে কাতারের জ্বালানি বিষয়ক প্রতিমন্ত্রী সাদ বিন শেরিদা আল কাবি ও সৌদি আরবের বিনিয়োগমন্ত্রী খালিদ এ আল-ফালিহও তাঁর সঙ্গে সাক্ষাৎ করবেন।
মোমেন বলেন, তৃতীয় অর্থনৈতিক ফোরাম নয়টি গুরুত্বপূর্ণ সমসাময়িক বিষয়ে আলোকপাত করবে। এগুলো হলো-জ্বালানি নিরাপত্তা, প্রযুক্তি এবং উদ্ভাবন, বাজার ব্যবস্থা পরিবর্তন, স্বাস্থ্য খাতে উদ্ভাবন, জলবায়ু অর্থায়ন, বাণিজ্য কৌশল এবং ব্যবস্থা, চতুর্থ শিল্প বিপ্লবে জনশক্তি, ডিজিটাল বিশ্বের খেলাধুলা ও বিদেশী বিনিয়োগের ভবিষ্যত।
প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা কাতারের আমিরের আমন্ত্রণে কাতার থ্রিডি ইকোনমিক ফোরাম-২০২৩-এ যোগ দিতে তিন দিনের এক সরকারি সফরে আজ বিকেলে দোহার উদ্দেশে ঢাকা ত্যাগ করেছেন।
প্রধানমন্ত্রী ও তাঁর সফরসঙ্গীদের বহনকারী বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের একটি ফ্লাইট বিকেল ৩.১৩ মিনিটে ঢাকার হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর থেকে যাত্রা করে।
কাতার ইকোনমিক ফোরাম হল মধ্যপ্রাচ্যের শীর্ষস্থানীয় কণ্ঠস্বর যা বিশ্বব্যাপী ব্যবসা এবং বিনিয়োগের জন্য নিবেদিত।
এই ফোরামের মূল উদ্দেশ্য হল- বিশ্বব্যাপী চলমান বহুমুখী চ্যালেঞ্জ ও সংকট এবং এর ফলে উদ্ভূত বিরূপ অর্থনৈতিক পরিণতি মোকাবেলায় আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের মধ্যে পারস্পরিক সহযোগিতা বৃদ্ধির মাধ্যমে সমাধান খুঁজে বের করা।
২৩ মে শেখ হাসিনা ৩য় কিউইএফের উদ্বোধনী অধিবেশনে যোগ দেবেন এবং দোহায় কাতার বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের উদ্দেশ্যে ভাষণ দেবেন।
২৪ মে, প্রধানমন্ত্রী কিউইএফ-এ যোগ দেবেন, কাতারের আমিরের সাথে বৈঠক করবেন এবং একটি বিশেষায়িত স্কুল আওসাজ একাডেমি পরিদর্শন করবেন।
আগামী ২৫ মে সকালে প্রধানমন্ত্রীর দেশে ফেরার কথা রয়েছে।
প্রধানমন্ত্রীর সফরসঙ্গী দলে রয়েছেন-পররাষ্ট্রমন্ত্রী, প্রধানমন্ত্রীর বেসরকারি শিল্প ও বিনিয়োগ বিষয়ক উপদেষ্টা বিদ্যুৎ, জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ প্রতিমন্ত্রী ও সরকারের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাগণ।
ব্রিফিংএ পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র সেহেলী সাবরিনও উপস্থিত ছিলেন।

নিউজটি শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর..

ফেসবুকে আমরা...