×
ব্রেকিং নিউজ :
ঈদে মিলাদুন্নবীর তারিখ নির্ধারণে আগামীকাল চাঁদ দেখা কমিটির সভা অসাম্প্রদায়িক রাষ্ট্রের ভিত মজবুত করতে সাম্প্রদায়িক অপশক্তি রুখতে হবে : তথ্যমন্ত্রী দেশে করোনা সংক্রমণ কমেছে দশমিক ১৬ শতাংশ মহালয়া দিয়ে শুরু হলো শারদীয় দুর্গোৎসবের ক্ষন গণনা করতোয়ায় নৌকাডুবিতে প্রাণহানির ঘটনায় রেলপথ মন্ত্রীর শোক জি কে শামীম ও ৭ দেহরক্ষীর যাবজ্জীবন কারাদন্ড শারদীয় দুর্গাপূজা নির্বিঘ্ন করতে সরকার সকল ব্যবস্থা গ্রহণ করবে : পরিবেশমন্ত্রী বিটিভি চট্টগ্রাম কেন্দ্রের মহাব্যবস্থাপকের পিতার মৃত্যুতে তথ্যমন্ত্রীর শোক সালেহ আহমদ তাকরীমকে সংবর্ধনা দেবে ধর্ম মন্ত্রণালয় ও ইসলামিক ফাউন্ডেশন দেশীয় প্রজাতির মাছ ও শামুক সংরক্ষণে সম্মিলিত প্রচেষ্টা নেয়ার আহ্বান মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রীর
  • আপডেট টাইম : 01/01/1970 02:00 AM
  • 726 বার পঠিত

আনারস খেতে অনেকেই পছন্দ করে। গ্রীষ্মকালীন এ ফলটির মধ্যে রয়েছে অনেক পুষ্টিগুণ। আনারস অ্যান্টিঅক্সিডেন্টের ভালো উৎস। এটি প্রদাহ কমাতে ও রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়াতে কাজ করে।

আনারসের মধ্যে থাকা ব্রোমেলেইন এনজাইমের কারণে এটি হজম ভালো করে। এ ফলটি ক্যানসার প্রতিরোধেও উপকারী। আনারসে রয়েছে প্রদাহরোধী উপাদান। এটি আর্থ্রাইটিস প্রতিরোধে কার্যকর।

তবে এত পুষ্টিগুণসমৃদ্ধ এ ফলটি কি গর্ভাবস্থায় খাওয়া উপকারী?  ভারতীয় ওয়েবসাইট টাইমস অব ইন্ডিয়া ও স্বাস্থ্যবিষয়ক ওয়েবসাইট হেলথলাইন জানিয়েছে এর উত্তর।

আনারস বেশ পুষ্টিগুণসমৃদ্ধ ফল। তবে এ ফলটি থেকে গর্ভবতী নারীকে একটু দূরেই থাকতে বলা হয়। কারণ, আনারসের মধ্যে রয়েছে উচ্চ মাত্রায় ব্রোমেলেইন। এ এনজাইমটি সারভিক্সকে নরম করে দেয় এবং জরায়ুর সংকোচনকে উদ্দীপ্ত করে। এ কারণে আগেভাগে সন্তান জন্ম হতে পারে, যেটি মা ও শিশু উভয়ের জন্যই ক্ষতিকর।

এ ছাড়া ব্রোমেলেইন গর্ভপাতও ঘটিয়ে দিতে পারে। তাই গর্ভাবস্থায় আনারস খাওয়া এড়িয়ে যাওয়ার পরামর্শই দেন বিশেষজ্ঞরা।

নিউজটি শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর..

ফেসবুকে আমরা...