×
ব্রেকিং নিউজ :
চট্টগ্রামে উদ্ধার হওয়া খাল রক্ষায় নৌকা চালানোর পরিকল্পনা চসিকের ইন্দোনেশিয়ায় অগ্নুৎপাতের পর নিখোঁজ ১২ জনকে খুঁজতে প্রচেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে উদ্ধারকারীরা ১৪১ সেরা করদাতার নাম প্রকাশ ঢাবি আন্ডারগ্র্যাজুয়েট প্রোগ্রামে ভর্তির আবেদন শুরু আগামী ১৮ ডিসেম্বর স্বতন্ত্র প্রার্থীর ক্ষেত্রে ভোটারের সমর্থনের তথ্য যুক্ত করার বৈধতা নিয়ে হাইকোর্টে রিট সরকার দেশে গণতন্ত্রের ভিত্তি শক্তিশালী করতে নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছে : প্রধানমন্ত্রী বাংলাদেশে জাতিসংঘের আবাসিক সমন্বয়কারী জাতিসংঘের স্বেচ্ছাসেবকদের অবদানের প্রশংসা করেছেন ১৪ দলের সঙ্গে আসন ভাগাভাগির বিষয়ে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত শিগগির : ওবায়দুল কাদের কর্মক্ষেত্র ও শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে যৌন হয়রানি, প্রতিরোধে কমিটি গঠন ও মনিটরিং জোরদারের উদ্যোগ নিতে হবে বিএনপি চরম মানবাধিকার লঙ্ঘনকারী : তথ্যমন্ত্রী
  • প্রকাশিত : ২০২৩-০১-২৬
  • ১৫০ বার পঠিত
  • নিজস্ব প্রতিবেদক

তথ্য ও সম্প্রচারমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ অনিবন্ধিত পোর্টাল ও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে গুজব ও ভুল তথ্য ছড়ানো প্রতিরোধে তাৎক্ষণিক ব্যবস্থা ও করণীয় বিষয়ে জেলা প্রশাসকদের দিক নির্দেশনা দিয়েছেন। 
তিনি আজ বৃহস্পতিবার দুপুরে রাজধানীর ওসমানী স্মৃতি মিলনায়তনে তিন দিনব্যাপী জেলা প্রশাসক সম্মেলনের শেষ দিনে বক্তব্য প্রদান ও মতবিনিময় শেষে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে দিক নির্দেশনা দেওয়ার কথা জানান।
তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রনালয়ের সচিব মো. হুমায়ুন কবীর খোন্দকার এ সময় উপস্থিত ছিলেন। 
তথ্য ও সম্প্রচারমন্ত্রী বলেন, ‘এ পর্যন্ত ১৬২টি অনলাইন সংবাদ পোর্টাল, ১৬৯টি দৈনিক পত্রিকার অনলাইন পোর্টাল, ১৫টি টেলিভিশনের অনলাইন পোর্টাল ও ১৪টি আইপিটিভিকে রেজিস্ট্রেশন দেওয়া হয়েছে। জেলা প্রশাসকদেরও এ বিষযটি জানানো হয়েছে। এর বাইরে সবগুলোই  রেজিস্ট্রেশনবিহীন।’
ড. হাছান বলেন, ‘জেলা পর্যায়ে অনেক অনলাইন পোর্টাল, আইপি টিভি ও ইউটিউব চ্যানেল আছে, যেগুলোর কোনো নিবন্ধন নেই এবং যারা সেগুলোতে কাজ করে তারা নিজেদেরকে আবার সাংবাদিক পরিচয় দেয় এবং সেগুলোর মাধ্যমে অনেক সময় গুজব ছড়ানো, ভুল তথ্য পরিবেশন এবং বিভ্রান্তি ছড়ানো হয়।’ মন্ত্রী এ সময় উল্লেখ করেন, এটি একটি বড় চ্যালেঞ্জ। 
তথ্য ও সম্প্রচারমন্ত্রী জানান, ‘অনিবন্ধিত পোর্টালে যদি দেখা যায় কেউ বিভ্রান্তি বা গুজব ছড়াচ্ছে, অথবা অসত্য বা ভুল সংবাদ পরিবেশন করে সমাজে হানাহানি তৈরি করার অপচেষ্টা চালাচ্ছে অথবা কারো ব্যক্তিগত বিষয়ে সংবাদ পরিবেশন করে সেটিকে আবার ভিন্ন কাজে অস্ত্র হিসেবে ব্যবহার করার চেষ্টা হচ্ছে, তাহলে তাৎক্ষণিকভাবে সত্য তথ্যটা প্রশাসনের পক্ষ থেকে পরিবেশন করা এবং তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য মন্ত্রণালয়ের গুজব প্রতিরোধ সেলকে জানাতে জন্য জেলা প্রশাসকদের পরামর্শ দেওয়া হয়েছে।’
বাস্তব প্রেক্ষাপট তুলে ধরে ড. হাছান বলেন, ‘গুজব ছড়ায় কয়েক ঘন্টায়, আর সেটির বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে সময় লাগে কয়েকদিন । কারণ এর একটা প্রক্রিয়া আছে, সেটি বিটিআরসি’কে জানাতে হয়। এজন্য এ সময়ে গুজব থেকে রক্ষা পেতে সোশ্যাল মিডিয়াতেই যেন বলা হয় সেটি গুজব এবং আসল সত্যটা এই। তারপর তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণের প্রক্রিয়া নেওয়া হয়।’ 
প্রশাসনকে দলীয়করণ বিষয়ক অপর এক প্রশ্নের জবাবে আওয়ামী লীগের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক ড. হাছান মাহমুদ বলেন, ‘সরকার তো প্রশাসন নিয়েই কাজ করে। সরকারের রাজনৈতিক অংশ এবং প্রশাসনিক অংশ অঙ্গাঙ্গিভাবে জড়িত এবং একসাথেই কাজ করতে হয়। সরকার প্রশাসনের মাধ্যমেই তার কর্মসূচি বাস্তবায়ন করবে-এটাই স্বাভাবিক। আমাদের সরকার প্রশাসনকে কোনভাবেই দলীয়করণ করেনি এবং করার কোন পরিকল্পনাও আমাদের নেই।’ 
মন্ত্রী বলেন, ‘আজকে যারা ডিসি হয়েছেন কিংবা বিভাগীয় কমিশনার বা যারা সচিব হয়েছেন, যোগ্যতার ভিত্তিতে এসএসবি’র মাধ্যমে এবং অন্যান্য প্রক্রিয়া অনুসরণ করে তাদেরকে পদায়ন করা হয়েছে। তাই ‘প্রশাসনকে আমরা কখনো দলীয়করণ করিনি বরং ইতিপূর্বে বিএনপি বিভিন্ন সময় যখন ক্ষমতায় ছিলো জিয়াউর রহমানের সময়, খালেদা জিয়ার সময়, সাত্তার সাহেবের সময় আর এরশাদ সাহেব যখন ক্ষমতায় ছিলো তখন প্রশাসনকে দলীয়করণ করা হয়েছিল।’  
নির্বাচন প্রসঙ্গে এক প্রশ্নের জবাবে হাছান মাহমুদ বলেন, ‘নির্বাচনের বিষয়ে আজকে এখানে আলোচনা হয়নি। কারণ, সরকার নির্বাচন আয়োজন করে না। নির্বাচনের আয়োজক প্রতিষ্ঠান হচ্ছে নির্বাচন কমিশন। নির্বাচন সংক্রান্ত কোনো নির্দেশনা দিতে হলে জেলা প্রশাসনকে সেটি নির্বাচন কমিশনই দেবে। সেটি আমাদের আলোচ্য বিষয় নয়।’ 
পাশাপাশি, সিনেমা হল পুণনির্মাণ, পুণরায় চালু করা, আধুনিকায়ন ও নতুন সিনেমা হল নির্মাণের জন্য যে ১ হাজার কোটি টাকা বিশেষ ঋণ তহবিল গঠন করা হয়েছে সেটি মাঠ পর্যায়ে সবাইকে অবহিত করার জন্য জেলা প্রশাসকদের পরামর্শ দেওয়া হয়েছে বলেও জানান তথ্য ও সম্প্রচারমন্ত্রী।
তিনি বলেন, ‘জেলা প্রশাসকদের পক্ষ থেকে উপজেলা পর্যায়ে তথ্য অফিস করার প্রস্তাবও এসেছে। তবে, আমি মনে করি উপজেলা পর্যায়ে সব মন্ত্রণালয়ের অফিস থাকতে হবে তা নয়, ক্রমাগতভাবে সরকারের আকার বড় করা সমীচীন নয়, সেটি তাদেরকে বলেছি।’

নিউজটি শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর..
ফেসবুকে আমরা...
#
ক্যালেন্ডার...

Sun
Mon
Tue
Wed
Thu
Fri
Sat